Tuesday, September 29, 2020

পেশাদার ব্লগিং, কিভাবে ব্লগিং আপনার জীবনকে পরিবর্তন করতে পারে

হ্যালো, আমার এই পোস্টে মানে পড়ছেন মানে ব্লগিং শব্দ নিশ্চয় আপনি শুনেছেন। সেই আগ্রহথেকেই হয়তো আপনি এই আর্টিকেল টি পড়তে এসেছেন। কিন্তু ব্লগিং যে আপনার ক্যারিয়ার হতে পারে সেই নিয়েই আজ আলোচনা করবো।

সুতরাং আজকের এই পোস্টে, আমি ব্লগিং কী তা সম্পর্কে নয়, আপনি যদি ব্লগিংকে একটি ব্যবসায় হিসাবে গ্রহণ করেন তবে কীভাবে এটি আপনার পুরো জীবনকে পরিবর্তন করতে পারে বা পেশাদার ব্লগার হওয়ার সুবিধা কী কী? এটি সম্পর্কে কথা বলবো।

আপনি যদি ৬-৮ ঘন্টা কাজ করে ভাল টাকা ইনকাম করতে চান। আর সেটা যদি হয় নিজের ইচ্ছে মত তাহলে আপনার জন্য ব্লগিং পেশা টা একটা পারফেক্ট চয়েজ।

পেশাদার ব্লগিং
পেশাদার ব্লগিং

ব্লগিং নিয়ে আরো বলার আগে কিছু বিষয় বলে নেয়। আপনি যদি ভেবে থাকেন ব্লগিং খুব সহজ তাহলে আপনি ভুল করছে। ব্লগিং এমন একটা পেশা যা আপনাকে সফলতা দিবে এটা শিওর কিন্তু আপনাকে আগে তাকে কিছু দিতে হবে। আপনি অন্য চাকরী বা পেশার জন্য ২-৩ টা টাস্ক পুরণ করলেই হয়ে গেল তা না এটা। প্রতিদিন আপনার জন্য বিভিন্ন টাস্ক। সাথে আপনাকে হতে হভে মানসয় একজন ব্যাক্তি। কেননা আপনার উপরে নির্ভর করছে কিভাবে আপনার লেখা আপনি সকলের সামনে উপস্থাপন করবেন, কিভাবে ইমেজ থেকে শুরু করে অন্যান্য ফাইল ঠিক ভাবে সকলের কাছে তুলে ধরবেন। তাছড়া র‍্যাংক করানোর জন্য আপনার ব্লগের সুরক্ষার জন্য সিকিউরিটি চেক এমন হাজারো সমস্যার সমুক্ষিত হওয়া লাগবে। তাই পুনরান বলছি ব্লগিং কোন সহজ পেশা না।

পেশাদার ব্লগিং এর সুবিধা

১ পরিচয় তৈরি

প্রত্যেকে তাদের জীবনে কিছু না কিছু করে তবে আপনি যখন ব্লগিং করছেন তখন অনলাইনে আপনার আলাদা পরিচয় রয়েছে, লোকেরা আপনি যে বিষয়টিতে একটি ব্লগ তৈরি করেছেন সেই বিষয়টিকে অনুসরণ করে। এটি নিজের মধ্যে একটি বড় বিষয় যে আপনি কেবল ব্লগিং থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন না তবে নিজের একটি পরিচয়ও তৈরি করতে পারেন।

২ অনলাইন থেকে আয়

পেশাদার ব্লগিংয়ের মাধ্যমে আপনি অনলাইনে প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। যেমন আপনি অনেক ব্লগারকে দেখেছেন যারা মাসে মাসে কয়েক লক্ষ টাকা উপার্জন করেন।

যাইহোক, আপনি অন্য কিছু কাজ করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন, তবে আপনি যদি লিখতে পছন্দ করেন এবং আপনি নতুন জিনিস শিখতে পছন্দ করেন তবে আপনি ব্লগিংয়ের মাধ্যমে প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারবেন তবে এর জন্য আপনি সারাদিন কাজ করবেন। এটি করার দরকার নেই, তবে সারা দিন ব্লগিংয়ে কাজ করার জন্য কেবল 4 -5 ঘন্টাই যথেষ্ট এবং এটিই সবচেয়ে বড় কারণ যে কোনও সাধারণ কাজের জন্য ব্লগিং বেশি উপকারী। ।

৩ সমাজ মধ্যে পরিবর্তন

পেশাদার ব্লগিং
পেশাদার ব্লগিং

আপনি যে কোনও বিষয়ে ব্লগ করছেন এবং লক্ষ লক্ষ লোক একমাসে আপনার ব্লগটি পড়তে আসে, যাতে আপনি তাদের চিন্তাকে প্রভাবিত করতে পারেন। এভাবে আপনি ব্লগিং করে সমাজে পরিবর্তন আনতে পারেন

যেমন- ধরুন আপনি কীভাবে আপনার ব্লগে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করবেন সে সম্পর্কে একটি ব্লগ লিখেছেন, এখন সমাজে এমন অনেক লোক আছেন যারা অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে চান তবে কীভাবে উপার্জন করতে হয় তা জানেন না, তবে আপনি তাদের ব্লগের মাধ্যমে বলছেন সুতরাং অবশেষে আপনি সমাজে সচেতনতা আনার চেষ্টা করছেন।

৪ নিজেদের কাছে এ আস্থা আসে

ব্লগিংয়ের সবচেয়ে বড় সুবিধা হল আমাদের মধ্যে নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেণির লোকেরা যখন নিজেরাই কিছু চিন্তা করার চেষ্টা করে, ও অর্থের অভাবে পিছপা হয়। সবশেষে আমরা হতাশ হয়ে পড়ি। কিন্তু ব্লগিং খুব বেশি অর্থ নেয় না, তাই আমরা সহজেই ব্লগিং করতে পারি।

আমরা এটি ব্যবসায় হিসাবে শুরু করতে পারি এবং আমাদের কারণে যখন আমাদের ব্লগটি কিছুটা বাড়তে শুরু করে, তখন আমাদের নিজের আত্মবিশ্বাস অনেক বাড়তে শুরু করে, তখন নিজের কাছেই আস্থা আসে হ্যাঁ এখন আমিও কিছু করি।

৫ অনেক কিছু পরিচালনা করার দক্ষতা একবারে আসে

আপনি যখন একটা পার্টিকুলার বিষয়ের উপরে ব্লগ লিখছেন, তখন আপনি সেই বিষয়ে অনেক বেশি জানেন যা কেও জানে না। ধরুন আপনি একটা টেকব্লগ চালাচ্ছেন, সুতরাং মার্কেটে কি কি ধরণের টেক প্রোডাক্ট চলছে তা আপনি অনেক ভাল জানবেন। এখন আপনার বন্ধু যদি কোন গ্যাজেট শপ দিয়ে থাকে, তবে আপনি তাকে ধারণা দিতে পারেন কোন কোন প্রোডাক্ট গুলো তার জন্য চয়েজ করা ঠিক হবে।

তাছাড়া এসইও থেকে শুরু করে ওয়েব ডিজাইন সব কিছুই আপনি জেনে যাবেন। তখন আপনি নিজেই অনেক কাজ নিজেই করতে পারবেন। আলাদা করে কারো কাছে যাওয়ার কোন প্রয়োজন নেই।

৬ আরামদায়ক জীবন

পেশাদার ব্লগিং
পেশাদার ব্লগিং

চাকরীর জীবনে সর্বদা টানাপোড়েন থাকে যে আপনাকে সকালে উঠে অফিসে যেতে হবে এবং তারপরে সন্ধ্যায় আপনাকে ঘরে ফিরতে হবে। সময় এর ১২ টা বাজায়ে ছেড়ে দিবে। তবে ব্লগিং আপনাকে বিছানায় বসতেও পারে। আপনি যদি ব্লগিংটি আরামে বসে উপার্জন করতে পারেন তবে ব্লগিংয়ের মাধ্যমে আপনি স্বাচ্ছন্দ্যময় জীবন পাবেন।

আমি আন্তরিকভাবে আশা করি যে আমার এই পোস্টটি দিয়ে আপনি জানবেন যে ব্লগিং আপনার পক্ষে কতটা উপকারী হতে পারে এবং ব্লগিং কীভাবে আপনার জীবনকে পরিবর্তন করতে পারে।

আমি আশা করি যে আপনি আমার এই ব্লগ পোস্টটি পড়ে খুশি হয়েছেন এবং পেশাদার ব্লগিংয়ের সুবিধাগুলি পছন্দ করেছেন। আমার এই প্রচেষ্টাটি আপনি কীভাবে পছন্দ করেছেন এবং এই তথ্যটি আপনি কীভাবে নিয়েছেন ও এই পোস্টটি সম্পর্কে আপনার কাছে যদি কোনও পরামর্শ বা প্রশ্ন থাকে তবে আপনি মন্তব্য করুন।

সর্বশেষ প্রকাশিত

ইউটিউবারদের জন্য স্যামসাংয়ের বিশেষ স্মার্টফোন!

গ্যালাক্সি এস১১ বাজারে এনে ২০২০ সাল শুরু করতে চায় স্যামসাং। ধারণা করা হচ্ছে ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে উন্মোচিত হবে সিরিজটি। পাঁচটি সংস্করণের স্মার্টফোন থাকবে এতে। সিরিজের...

নগ্ন ছবি উঠবে না যে স্মার্টফোনে

নগ্ন ছবি তোলা যাবে না ‘টোন ই২০’ মডেলের স্মার্টফোনটিতে। সেই সঙ্গে ছবি তোলার সময় কেউ নগ্ন হলেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্ধ হয়ে যাবে স্মার্টফোনটির ক্যামেরা। আর...

বিনামূল্যে মোবাইল ফোন পেলেন দরিদ্র শিক্ষার্থীরা

মহামারি করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে বন্ধ রয়েছে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এমন পরিস্থিতে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া নির্বিঘ্নে রাখতে নানা পদক্ষেপের পাশাপাশি অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম চালু রেখেছে সরকার। এর অংশ...

বাটনওয়ালা স্মার্টফোন!

বাজারে নতুন বাটনওয়ালা স্মার্টফোন! ৫জি স্মার্টফোন নিয়ে আসছে কানাডিয়ান কোম্পানি ব্লাকবেরি। অনয়ার্ড মোবিলিটি ও এফআইএইচ কোম্পানির সাথে যৌথভাবে নতুন একটি ফোন বাজারে আনছে তারা।...